মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

আলু চাষ

প্রাচীন বরেন্দ্র অঞ্চল হিসেবে পরিচিত জয়পুরহাটের কালাই উপজেলায় এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক পরিমাণ জমিতে আলু চাষ হয়. বীজ, সার ও কীটনাশক ওষুধের পর্যাপ্ত সরবরাহসহ আবহাওয়া অনুকূলে থাকায়  উপজেলাতে আলুর বাম্পার ফলন হয়। যার ফলে স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে এখানকার আলু দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহসহ বিভিন্ন দেশেও রপ্তানি করা হচ্ছে। ফলে বর্তমান আলুর বাজারে আলুর চাহিদা বেড়ে গেছে। সেই সঙ্গে আলুর বাজারে আলুর ভালো দাম পাওয়ায় লাভের মুখ দেখে স্থানীয় চাষিরা।

 

কালাই পৌরসভাসহ উপজেলার মাত্রাই, উদয়পুর, পুনট, জিন্দারপুর ও আহম্মেদাবাদ ৫টি ইউনিয়নে ১১ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও এক হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে অতিরিক্ত আলু চাষ হয়েছে। যা অর্জিত লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ১২৫৫০ হেক্টর জমিতে আলু চাষ হয়। এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে গ্রানোলা, মিউজিকা, ডায়মন্ড, এস্টোরিকস, কার্ডিনাল ও রোজেটা জাতের আলু চাষ হয়েছে। সেই সঙ্গে আলুর বাম্পার ফলন হওয়ায় স্থানীয়ভাবে চাহিদা মিটিয়ে এখানকার আলু ঢাকা, গাজীপুর, নারায়নগঞ্জ, নরসিংদী, কুমিল্লা, কুষ্টিয়া, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, গোপালগঞ্জ, ফেনী ও চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা হচ্ছে।

 

এ ছাড়া এখানকার আলু মালেশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, জাপান, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, কুয়েত, নেপাল ও রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি করা হচ্ছে। আর উপজেলাতে ৩০ থেকে ৩৫টি স্থানে প্রতিদিন প্রায় ২৫শ থেকে ৩ হাজার মণ বিভিন্ন জাতের আলু দেশের বিভিন্ন জেলার এবং বিভিন্ন দেশে পাঠানোর জন্য আলু ব্যবসায়ীরা আলু কিনছে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter